শিরোনাম :
আবারও বাড়ল বিদ্যুতের দাম, প্রজ্ঞাপন জারি বাংলাদেশে কেন অফশোর ব্যাংকিং চালু হচ্ছে বেইলি রোডে রেস্টুরেন্টে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ১০ ইউনিট গাজায় ত্রাণ দেওয়ার সময় ইসরায়েলি বাহিনীর নির্বিচার গুলি, নিহত ১০৪ টেকনাফ সীমান্তে ফের মর্টার শেল ও গুলির শব্দ বাড়ছে করোনা, ফেব্রুয়ারিতে মৃত্যু ৮ জনের ১১টি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা হাজার লোকের বিপরীতে হাসপাতালে রয়েছে একটি বেড: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিএনপি-জামায়াত ইসরায়েলের দোসর: পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাখাইনের মিনবিয়া শহরের দখল নিলো আরাকান আর্মি অভাব অনটনে বৃদ্ধের আত্মহত্যা স্বামীকে জিম্মি করে গর্ভবতী স্ত্রীকে ধর্ষণ, মারা গেছে গর্ভের সন্তান সব সঞ্চয় ফিলিস্তিনি শিশুদের দান করে গেছেন সেই মার্কিন বিমান সেনা সূচক পতনে শেষ হয়েছে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস মালয়েশিয়ায় ১৪ হাজারেরও বেশি অবৈধ অভিবাসী গ্রেফতার

স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত

  • সোমবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ঢাকা : আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত আসায় ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের করোনা ভ্যাকসিনের আওতায় আনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে বের হওয়ার সময় সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) অনুমোদন পেলে এ কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানান তিনি।

জাহিদ মালেক বলেন, আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন নেওয়ার চেষ্টা করছি। অনুমোদন পেলে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে। এ ছাড়া চলতি মাসে আরও আড়াই কোটি টিকা আসছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এখন আমরা ১৮ বছর থেকে তদূর্ধ্ব বয়সী নাগরিকদের টিকা দিচ্ছি। আমরা ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছি। এ সংখ্যাটি বিশাল। আমরা যেহেতু সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিচ্ছি, কাজেই ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদেরও টিকা দেব। তবে, এর আগে আমরা ডব্লিউএইচও’র অনুমোদন নেব।’

‘যদিও ২২টি দেশ তাদের ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী নাগরিকদের টিকা দিচ্ছে। তারা এ ক্ষেত্রে তাদের নিজস্ব আইন ও প্রটোকল অনুসরণ করছে’, যোগ করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এ ছাড়া জাহিদ মালেক বলেন, ‘আমাদের টিকার ঘাটতি হবে না। চলতি মাসেই আরও আড়াই কোটি টিকা আসছে। এটি চূড়ান্ত হয়েছে।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার সংক্রমণ এখন নিম্নমুখী। ফলে, করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালগুলোর কিছু অন্যান্য রোগীদের জন্য ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ঢাকায় ১২ থেকে ১৪ হাজারের মতো করোনা সিট খালি। এগুলোতে অন্যান্য রোগী ভর্তি করা হবে।’

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved