শিরোনাম :
সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে : যুবদল সভাপতি ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ৮ জন দেশে করোনায় আরও ১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১০ পোশাক রপ্তানিতে আয় ১৪ শতাংশ বেড়েছে সেপ্টেম্বরে ভারত সফরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী রিজার্ভ থেকে ডলার বিক্রির রেকর্ড সৌদি আরবে এক বছরে ১৪৭ জনের মৃত্যুদণ্ড আন্দোলন নস্যাৎ করতে পাল্টা কর্মসূচি দিচ্ছে আ’লীগ: ফখরুল সার-বীজের দাম বাড়ানো হবে না : কৃষিমন্ত্রী জামিনে মুক্তি পেলেন যুবদল সভাপতি টুকু আবারও দাম বাড়ল এলপিজির আবার খোলাবাজার থেকে এলএনজি কিনছে সরকার ডিএসই-সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে এবার বেসরকারিভাবে হজে খরচ বাড়ছে দেড় লাখ টাকা ময়মনসিংহে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে আরেক ট্রাকের ধাক্কায় নিহত ২

সুইজারল্যান্ডে বৈধতা পেল আত্মহত্যার যন্ত্র

  • বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : এই পৃথিবীতে বেঁচে থাকার ইচ্ছে হারিয়ে মরে যেতে ইচ্ছে করা মানুষের সংখ্যা কিন্তু কম নয়। তাদের মধ্যে অনেকেই আত্মহত্যা করার পথ খুঁজে নেন। অনেকে চাইলেও তা করতে পারেন না। কিন্তু তার পরেও তথ্য বলছে, বিশ্বের প্রতিদিন আট লক্ষেরও বেশি মানুষ আত্মহত্যা করে মৃত্যুর পথ বেছে নেন।

বহু দেশে আবার স্বেচ্ছামৃত্যু বা আত্মহত্যা বৈধ। কেউ চাইলে তার জীবন শেষ করার অধিকার রাখেন সে সব দেশে। এমনই একটি দেশ হলো সুইজারল্যান্ড। এবার সে দেশে আইনি স্বীকৃতি পেল একটি বিশেষ যন্ত্র, ‘সারকো’। এ যন্ত্রে এক মিনিটেরও কম সময়ে অনায়াসে মৃত্যুবরণ করা যাবে, সম্পূর্ণ যন্ত্রণাহীন ভাবে।

‘এক্সিট ইন্টারন্যাশনাল’ নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই যন্ত্রটি তৈরি করেছে বলে জানা গেছে। এই সংস্থার অধিকর্তা ফিলিপ নিটশে। তিনি ‘ডক্টর ডেথ’ হিসেবেও পরিচিত। তিনিই আবিষ্কার করেছেন এই সারকো।

যন্ত্রটি বাইরে থেকে তো নিয়ন্ত্রণ করা যাবেই, সেই সঙ্গে কফিন আকৃতি এই যন্ত্রের ভেতরে ঢুকে ভেতর থেকেও চালু করা যাবে। এর পরে কৃত্রিম উপায়ে অক্সিজেন ও কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ কমিয়ে এক মিনিটেরও কম সময়ের মধ্যে মারা যাওয়া যাবে এই যন্ত্রে। তবে নিজে থেকে যন্ত্রে ঢুকে মারা যাওয়া যাবে কিনা, তাই নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে নানা মহলে। কারণ যে মানুষটির দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে, তিনি নিজেকে শেষ করে দিতে চাইছেন, সেই মুহূর্তে তাদের মন, মাথা, শরীর কিছুই ভালোভাবে কাজ করে না। তারা অবসন্ন ও অচেতন হয়ে পড়েন। তাই ওই সময়ে যন্ত্রটি চালানো তাদের পক্ষে কতটা সম্ভব হবে, তা নিয়ে সন্দেহ আছে।

এক্সিট ইন্টারন্যাশনাল সংস্থা অবশ্য দাবি করেছে, এমন কোনো অসুবিধা হবে না। যন্ত্রটি নিজে থেকেও সঙ্কেত গ্রহণ করতে পারবে, কী চাইছেন ব্যবহারকারী। এই যন্ত্রকে ইচ্ছেমতো বহন করে দূরে নিয়ে যাওয়া যাবে। প্রসঙ্গত, গত বছর অন্তত ১৩০০ মানুষ সুইজারল্যান্ডে আইনি ভাবে আত্মহত্যা করেছেন। এবার আইনি বৈধতা পেল আত্মহত্যা করার যন্ত্রও। এতে অনেকের ‘সুবিধা’ হবে বলেই দাবি বিশেষজ্ঞ মহলের।

তবে এই যন্ত্রের নিন্দাতেও অনেকেই মুখর। এটি আত্মহত্যায় উস্কানি জোগানো ছাড়া কিছু নয় বলেই মত বহু মানুষের। এর যা কার্যপদ্ধতি, তাও নারকীয় গ্যাসচেম্বারের থেকে আলাদা কিছু নয় বলেই মত তাদের।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved