শিরোনাম :
ভারতে বিচার শেষে পি কে হালদারকে পাওয়া যেতে পারে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইন্দোনেশিয়ায় পামের দাম ‘অর্ধেক’, মাথায় হাত চাষিদের ইভ্যালির এমডিসহ তিন জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি জঙ্গি ইস্যু সরকারের নতুন খেলা : আ স ম রব বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কার মতো হওয়ার সুযোগ নেই: বিশ্বব্যাংক নেত্রকোনায় ফসলরক্ষা বাঁধ ভেঙে তলিয়ে যাচ্ছে জমির ফসল আকস্মিক ভাঙ্গনে মুছে যেতে বসেছে গোবিন্দগঞ্জের গ্রামটি বেসরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণেও লাগাম, পরিপত্র জারি বিএনপির মুখে অর্থ পাচার নিয়ে কথা মানায় না : তথ্যমন্ত্রী সাংহাইয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলছে আজ পি কে হালদারকে অর্থপাচারে সহায়তা করেছে সরকার : মোশাররফ ঈদে ওয়ালটনের ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত ক্যাশব্যাক ও কোটি কোটি টাকার ফ্রি পণ্য ভারতের গম রপ্তানি বন্ধে বাংলাদেশে প্রভাব পড়বে ‘শক্তিশালী সেনাবাহিনী’ গড়ার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে আফগানিস্তান পতন ধারায় লেনদেন চলছে

সংবিধান ভোঁতা ছুরি দিয়ে জবাই করেছিল তারা: সংসদে মেনন

  • বুধবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২

ঢাকা : নির্বাচন কমিশন নিয়োগের আইনটি অসম্পূর্ণ এবং এ কারণে বিতর্ক অব্যাহত থাকবে বলে মনে করছেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি সাংসদ রাশেদ খান মেনন। তবে দেরিতে হলেও নির্বাচন কমিশন নিয়োগের আইন আনায় সরকারকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি।

আজ বুধবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন মেনন।

তিনি আরও বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে মনোনয়ন-বাণিজ্য, অর্থ, পেশিশক্তি, বিশেষ করে প্রশাসনের সরাসরি হস্তক্ষেপ ও নির্বাচন কমিশনের নিশ্চেষ্ট ভূমিকা সমগ্র নির্বাচনী ব্যবস্থা সম্পর্কে জনমনে আস্থা সম্পূর্ণ বিনষ্ট করেছে।

‘‌নারায়ণগঞ্জের ব্যতিক্রমের নির্বাচন হয়েছে। দেশের মানুষ ব্যতিক্রমহীনভাবে এ ধরনের জাতীয় নির্বাচনই দেখতে চায়, সেটাই নিশ্চিত করতে হবে। এই সরকারকে বহাল রেখেই সেটা করা সম্ভব। এ জন্য প্রয়োজন সদিচ্ছা ও নির্বাচনী আইন, আচরণবিধি মানা ও অর্থ, পেশিশক্তি ও প্রশাসনের ভূমিকা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ। ’

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪-দলীয় জোটের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি মেনন সংবিধান পর্যালোচনার দাবি জানান।

‘এ বছর সংবিধানের ৫০ বছর পূর্তি হবে। বঙ্গবন্ধু সংক্ষিপ্ততম সময়ের মধ্যে যে সংবিধান উপহার দিয়েছিলেন, তা সংসদীয় ব্যবস্থার অন্যতম শ্রেষ্ঠ সংবিধান। দুর্ভাগ্যজনকভাবে তাঁর আমলেই সংবিধানের দ্বিতীয় ও চতুর্থ সংশোধনী সংবিধানের মৌল বিষয়েরই পরিবর্তন ঘটিয়েছিল। ’

তিনি বলেন, ‘সামরিক শাসকেরা নিজেদের ক্ষমতার স্বার্থে আর পাকিস্তান আমলের রাজনীতি ফিরিয়ে আনতে ওই সংবিধানকে ভোঁতা ছুরি দিয়ে জবাই করেছিল। ’

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved