শিরোনাম :
কেবিন ক্রুদের অন্তর্বাস পরা বাধ্যতামূলক করল পাকিস্তান টানা বন্ধে পুরোনো রূপে সদরঘাট রাশিয়ার অন্তর্ভুক্ত হলো ইউক্রেনের চার অঞ্চল, পুতিনের ঘোষণা ইউক্রেনে বেসামরিক গাড়িবহরে রাশিয়ার হামলা, নিহত অন্তত ২৩ ৩ দিনের মধ্যে সাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, বাড়বে বৃষ্টি বিএনপির পাকিস্তানই ভালো ছিল বক্তব্য এবং রডের মাথায় জাতীয় পতাকা একই সূত্রে গাঁথা : তথ্যমন্ত্রী প্রতিমাসে দেশে ধর্ষণের শিকার ৭১ শিশু বাংলাদেশে করোনায় আরও ১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৭০৮ বিবিসির ১০ ভাষার রেডিও সম্প্রচার বন্ধ হচ্ছে কাবুলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আত্মঘাতী হামলা, নিহত ১৯ বিশ্বকাপের প্রাইজমানি ঘোষণা, চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ১৬ কোটি টাকা মন্দির-মণ্ডপ পাহারায় নেতাকর্মীদের থাকতে বললেন ওবায়দুল কাদের সুষ্ঠু নির্বাচন যেন না হয় সেজন্য উঠে পড়ে লেগেছে আ. লীগ: রিজভী ছেলেকে প্রকাশ্যে আনলেন বুবলী চার মাসের সাজা এড়াতে সাড়ে ৫ বছর পলাতক, অবশেষে ধরা

রংপুর হাজীগঞ্জ পুড়ছে, প্রধানমন্ত্রী ভানুর মতো শুধু দেখছেন: রিজভী

  • বুধবার, ২০ অক্টোবর, ২০২১

ঢাকা: রংপুর, হাজীগঞ্জ ও চৌমোহনী পুড়ছে, আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভানুর মতো শুধু দেখছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

রংপুরের ঘটনা প্রধানমন্ত্রী সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে রিজভী বলেন,’ প্রধানমন্ত্রী নাকি সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছেন। রংপুর পুড়ছে, হাজীগঞ্জ পুড়ছে, নোয়াখালীতে আক্রমণ হচ্ছে আর শেখ হাসিনা ভানুর মতো শুধু দেখছেন। আমার বাড়ি আমি দেখবো না। ওনার দেশ, বাংলাদেশকে ওনার জমিদারিতে পরিণত করেছেন। উনি না দেখলে কে দেখবেন? ওবায়দুল কাদের আবার ওনার সুরে বলেন, আমি না দেখলে কে দেখবে।

বুধবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির উদ্দ্যোগে পবিত্র ঈদ-ই মিলাদুন্নবী (সা:) উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘একটা ভয়ঙ্কর মিথ্যার উপর দিয়ে তারা (ক্ষমতাসীনরা) বসবাস করছে। অন্যকে বলছেন মিথ্যাবাদী। উনি (প্রধানমন্ত্রী) যদি আসলেই নামাজ পড়তেন, রাসুল (সা.) এর কয়েকটি বাণী যদি আয়ত্ত্ব করতেন হৃদয় দিয়ে তাহলে তিনি আজকে নিষ্ঠুর ফ্যাসিস্ট এর মত হতেন না, তিনি আজকে জালেম সরকারের প্রধান শাসক হিসেবে আজকে পরিগনিত হতেন না। এটাতো উনি ধারণ করেননি। উনি ধারণ করেছেন নির্বাচন আসলে বোরকা পরবেন, হাতে তজবি নিবেন, সবটাই ভন্ডামি।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘আজকে আওয়ামী লীগের লোকেরা অনর্গল মিথ্যা কথা বলে, আবার তারাই বলছেন বিএনপি নাকি মিথ্যে কথা বলে। আবার আওয়ামী লীগের লোকেরা বলে শেখ হাসিনা নাকি তাহাজ্জুদের নামাজও পড়ে। কত বড় ভণ্ডামি।

কুমিল্লার পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনা প্রসঙ্গে রিজভী বলেন, কুমিল্লাবাসী এবং হিন্দু সম্প্রদায়েও বলছে আমরা নিরাপত্তার জন্য কুমিল্লা প্রশাসনকে বলেছিলাম। কিন্তু তারা যথাসময়ে সাড়া দেয়নি অনেক দেরি করে এসেছে, এ নিয়ে পত্রপত্রিকায়ও লেখালেখি হচ্ছে। আর এখন একের পর এক বিএনপি’র নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে, ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, রাসূল (সা.) এর নিকট এক মা আসছেন তার মেয়েকে নিয়ে বললেন হুজুর আমার মেয়েটায় খুব মিষ্টি খায় ওকে মিষ্টি খেতে বারণ করেন। রাসুল (সা.) বললেন সাতদিন পরে এসো। পরে বললেন তুমি মিষ্টি খেওনা। মহিলা জানতে চাইলেন হুজুর সাতদিন পরে আসতে বললেন কেনো? রাসূল (সা.) বললেন, আমি নিজেওতো মিষ্টি খাই, নিজে যদি নিয়ন্ত্রণ করতে না পারি তাহলে অপরজনকে কিভাবে তা বলব। এই যে দৃষ্টান্তগুলো, আমাদের আর কিছুই দেখতে হবে না। আমরা যদি রসূল (সা.) কে আমাদের কর্মকাণ্ড হিসেবে দেখি তাহলে কেউ বিপথগামী হবে না। একজন সাচ্চা মানুষ হিসেবে একজন মহৎ মানুষ হিসেবে সে সমাজে প্রতিষ্ঠিত হবে।

রিজভী বলেন, আজকে গুম-খুনের রাজনীতিতে, আজকে মিথ্যাচারের রাজনীতিতে আমরা প্রত্যেকে যদি প্রতিবাদী হই আমার মনে হয় সরকার বেশি দিন টিকতে পারবে না। আদর্শের কাছে, ন্যায়ের কাছে, ইনসাফের কাছে, সুশাসনের কাছে, নীতির কাছে কখনোই জুলুমকারীরা টিকে থাকতে পারে না। কখনোই পারবে না। আমার মনে হয় আজকে এই সরকার একটি গভীর নীলনকশা বাস্তবায়ন করছে।

দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়ে বিএনপির এই শীর্ষনেতা বলেন, ‘সয়াবিন তেল এক লাফে ৭ টাকা বৃদ্ধি হয়েছে। ১৫৩ টাকা থেকে বেড়ে ১৬০টাকা হয়েছে। ওবাদুল কাদের বলছেন মনিটরিং করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর এই মনিটরিং করতে গিয়ে চালের দাম, ডালের দাম সব হু হু করে আকাশ ছুঁই ছুঁই করছে। এটাই হচ্ছে শেখ হাসিনার রাজনৈতিক অপকৌশল। রংপুর পুড়ুক, চৌমোহনী পুড়ুক, হাজীগঞ্জ পুড়ুক আমি এর মধ্য দিয়ে আমি আমার এজেন্ডা বাস্তবায়ন করব।

তিনি আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনা মনে করেন আমি চালের দাম, লবনের দাম, পেয়াজের দাম, ডালের দাম বাড়াবো, আর আমার সিন্ডিকেটরা পকেট ফুলাবে। পকেট ফুলিয়ে মোটা সোটা হতে থাকবে। আর এর মধ্য দিয়ে সরকারের ময়ুরের সিংহাসন টিকে থাকবে এটাই হচ্ছে শেখ হাসিনার অভিপ্রায়। এটাই হচ্ছে শেখ হাসিনার ইচ্ছে। তারা সিন্ডিকেটকে সুযোগ করে দেওয়ার জন্য জনগণের দৃষ্টি চৌমুহনীতে, হাজীগঞ্জে, চট্টগ্রামে এবং পীরগঞ্জে উনি নিয়ে রেখেছেন। আর ওবায়দুল কাদেরসহ আরও যারা মন্ত্রী রয়েছেন তাদেরকে উনি বলে রেখেছেন তোমরা এটার ওপর ব্যাস্ত রাখো জনগণকে। তারা সেই কাজটাই অত্যান্ত নিষ্ঠার সাথে করছেন।

ওলামা দলের আহ্বায়ক হাফেজ মাওলানা শাহ মোহাম্মাদ নেছারুল হকের সঞ্চালনায় দোয়া মাহফিলে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা মীর সরাফত আলী সপু, ডা:রফিকুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved