শিরোনাম :
সরকারের তথাকথিত উন্নয়নে জনগণ ‘সাফার’ করছে: ফখরুল ইডেনের ‘অপরাধী চক্র’কে দ্রুত গ্রেফতার করতে হবে : আ স ম‌ রব মিয়ানমারের সাহস নেই আমাদের সরাসরি কিছু করার: পরিকল্পনামন্ত্রী প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুর্গোৎসব ইরানে ভূমিকম্পের আঘাত, আহত ৫ শতাধিক সবাইকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে : খাদ্যমন্ত্রী মিনিকেট নামে কিছু বিক্রি করা যাবে না : মন্ত্রিপরিষদ সচিব দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ২ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৩৪৪ জন ইউক্রেনকে আরও ৬২৫ মিলিয়ন ডলারের সামরিক সহায়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র রসায়নে নোবেল পুরস্কার পেলেন ৩ বিজ্ঞানী অসাম্প্রদায়িকতা ও গণতন্ত্রের জন্য বিএনপি ছদ্মবেশ ধরেছে: কাদের বিএনপিকে সিরাতুল মুস্তাকিমে চলার আহ্বান আব্দুর রহমানের অসাম্প্রদায়িক চেতনা ধ্বংসের মূলহোতা বিএনপি: হানিফ সুলতানা কামালরা আওয়ামী অধিকার রক্ষার কর্মী : রিজভী ভিসার নিয়মে পরিবর্তন আনল সংযুক্ত আরব আমিরাত

যুক্তরাজ্যে ৯৮ শতাংশ পণ্য রপ্তানিতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

  • বুধবার, ১৭ আগস্ট, ২০২২

ঢাকা : যুক্তরাজ্য ডেভেলপিং কান্ট্রিজ ট্রেডিং স্কিম (ডিসিটিএস) নামে নতুন বাণিজ্যনীতি ঘোষণা করেছে, যা বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৬৫টি উন্নয়নশীল দেশকে শুল্ক হ্রাস ও সহজতর রপ্তানি সুবিধা প্রদান করবে।

গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার ব্রিটিশ হাইকমিশন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, এ সুবিধায় শুল্কমুক্ত মর্যাদা না হারিয়েই বাংলাদেশ অন্যান্য দেশের কাঁচামাল ব্যবহার করে যুক্তরাজ্যে পণ্য রপ্তানি করতে সক্ষম হবে। এ স্কিমের আওতায় অস্ত্র ছাড়া অন্য সব পণ্যে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের শুল্কমুক্ত রপ্তানি সুবিধা অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন বলেন, ‘ডিসিটিএস বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশগুলোর অর্থনৈতিক বিকাশ ও সমৃদ্ধকরণে বাণিজ্য এবং বেসরকারি খাতের শক্তিকে কাজে লাগাবে।

যুক্তরাজ্য বর্তমানে বাংলাদেশের অন্যতম রপ্তানি বাজার। দুই দেশের মধ্যে বার্ষিক প্রায় চার বিলিয়ন ডলার বাণিজ্য হয়। এই নতুন স্কিমের অধীনে বাংলাদেশের পণ্য যুক্তরাজ্যের বাজারে আরো সহজ প্রবেশাধিকার পাবে। এমনকি বাংলাদেশ ২০২৬ সালে স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উত্তীর্ণ হওয়ার পরও তৈরি পোশাকসহ ৯৮ শতাংশ পণ্য শুল্কমুক্তভাবে যুক্তরাজ্যে রপ্তানি করতে পারবে। আমরা আশা রাখি যে বাংলাদেশের ক্রমবর্ধমান উন্নতির ফলে উভয় দেশের মধ্যে আমদানি ও রপ্তানি বৃদ্ধি পাবে এবং বাংলাদেশ যুক্তরাজ্য থেকে উন্নতমানের পণ্য ও সেবা ক্রয় করতে পারবে।

এই স্কিমে মানবাধিকার এবং শ্রম অধিকার রক্ষায় যুক্তরাজ্যের যে অঙ্গীকার তা প্রতিফলিত হয়েছে। গুরুতর মানবাধিকার ও শ্রম অধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটলে বাণিজ্য সুবিধা তুলে নেওয়ার ক্ষমতা রাখা হয়েছে। এ ছাড়া দুর্নীতিবিরোধী, জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশবিষয়ক কনভেনশনগুলোতে যুক্তরাজ্যের যে অঙ্গীকার রয়েছে তা ডিসিটিএস সমর্থন করবে। নুতন স্কিমটি ইউকে জেনারেলাইজড স্কিম অব প্রেফারেন্সকে (জিএসপি) প্রতিস্থাপন করবে এবং ২০২৩ সালের প্রথম দিকে কার্যকর হবে।

উন্নয়নশীল দেশগুলোর হাজারের ওপর পণ্য যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করে, যেগুলো এরই মধ্যে কম বা শূন্য শুল্ক সুবিধা পাচ্ছে। সেই আওতা এবার আরো বাড়ছে। এতে আফ্রিকা থেকে আসা প্রায় ৯৯ শতাংশ পণ্যই এ সুবিধা পাবে। যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বিভাগ জানায়, বাণিজ্যকে দরিদ্র দেশগুলোর সমৃদ্ধি বা দারিদ্র্য দূরীকরণের উপায় হিসেবে কাজে লাগাতে চায় যুক্তরাজ্য। কিংবা সে সব দেশের সাহায্যনির্ভরতা কমাতে চায়।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved