শিরোনাম :
ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিধসে নিহত ১৪ ফের আগ্রাসন চালালে ইসরায়েলে আরও ভয়াবহ হামলার হুঁশিয়ারি ইরানের বাংলাদেশি জাহাজ ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত ৮ জলদস্যু গ্রেপ্তার জাহাজে আর্মড গার্ড থাকলে এমন ঘটনা ঘটত না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী পহেলা বৈশাখ নিয়ে ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য দূরভিসন্ধিমূলক: রিজভী নোয়াখালীর দুই নাবিকের মুক্তিতে স্বস্তি পরিবারের মাঝে কাল থেকে খুলছে ব্যাংক-বিমা-অফিস-আদালত সেপটিক ট্যাংকে কাজ করতে নেমে প্রাণ গেল ৩ শ্রমিকের ইরানে পাল্টা হামলায় সমর্থন নেই যুক্তরাষ্ট্রের, জানালেন বাইডেন বাংলাদেশে আশ্রয় নিলেন মিয়ানমারের ৯ সীমান্তরক্ষী কারা বৈশাখের চেতনাবিরোধী তা আজ প্রতিষ্ঠিত সত্য: কাদের মুক্তিপণের অর্থ যেভাবে পেল সোমালিয়ার জলদস্যুরা মুক্ত এমভি আবদুল্লাহ: কত ডলার দিতে হলো মুক্তিপণ? যুক্তরাষ্ট্রকে ইরানে হামলায় ভূমি ব্যবহারের সুযোগ দেবে না আরব দেশগুলো ইসরায়েলে হামলা চালাতে যাওয়া ইরানের অসংখ্য ড্রোন ধ্বংস করল জর্ডান

যারা পাকিস্তানের পতাকা ওড়াচ্ছে তারা স্বাধীনতাবিরোধীদের বংশধর : তথ্যমন্ত্রী

  • শনিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২১

ঢাকা : ‘যারা দেশের মাটিতে খেলার মাঠে পাকিস্তানের জাতীয় পতাকা ওড়াচ্ছে কিংবা যারা পাকিস্তানের জয়ে আনন্দ প্রকাশ করছে তারা স্বাধীনতাবিরোধীদের বংশধর। ওদের পূর্বপুরুষরা এ দেশের স্বাধীনতা চায়নি।

এদের চিহ্নিত করে মূলোৎপাটন করতে হবে’। শনিবার (২০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সীতাকুণ্ডে শঙ্কর মঠ ও মিশনের শতবর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত যুব সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও সমপ্রচারমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সবসময় বলেন ধর্ম যার যার এ দেশ সবার। কিন্তু দুর্গা পূজায় দেশের ৮-১০টি মন্দিরে হামলা হলো, বাড়ি ঘরে হামলা চলো। সেই সাত সমুদ্র দূরের লন্ডনে বসে এ হামলার পরিকল্পনা করা হয়। চট্টগ্রামের জেএম সেন হলের ব্যানার ছেঁড়া হলো, আমি সাথে সাথে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে এসে সেখানে ছুটে এসেছি। পীরগঞ্জে বাড়ি ঘরে হামলা-ভাঙচুর হলো আমি পরদিনই সেখানে ছুটে গেছি। সরকার এসব হামলাকারীদের শক্ত হাতে প্রতিরোধ করেছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, এ দেশে হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সবাই স্বাধীনভাবে বাস করবে। এ লক্ষ নিয়েই দেশ স্বাধীন হয়েছে।

বক্তব্যকালে মন্ত্রী সীতাকুণ্ড মহাতীর্থের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, পাহাড়ের তলদেশে এত সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশে এ তীর্থভূমি। কিন্তু পাহাড়ের মন্দিরগুলো এত উঁচুতে যে আমিও কখনো ওঠার সাহস করিনি। অপেক্ষায় আছি পায়ে হেঁটে আমি সেখানে যাব। আসলে এই পাহাড়ে ক্যাবল কারের ব্যবস্থা করা গেলে বয়স্ক তীর্থযাত্রীদের উপকার হতো। এজন্য আমি ভারতীয় কয়েকজন বিনিয়োগকারীর সাথেও কথা বলেছি। এটি করতে পারলে আমার ভালো লাগবে।

শঙ্কর মঠ ও মিশনের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী তপনানন্দ গিরি মহারাজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমৎ স্বামী স্বরসতী গিরি মহারাজ। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সীতাকুণ্ড উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম আল মামুন। অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিমল চন্দ্র নাথ, পৌর কাউন্সিলর শফিউল আলম মুরাদ প্রমুখ।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved