শিরোনাম :
পতন ঠেকাতে ক্ষমতাসীনরা জ্ঞানশূন্য হয়ে পড়েছে : রিজভী সংকটেও তৈরি পোশাকসহ রপ্তানি আয়ে সুবাতাস ইসলামী ব্যাংকে ‘ভয়ংকর নভেম্বর’ : অনুসন্ধানের নির্দেশ যুদ্ধ নয়, আমরা শান্তিতে বিশ্বাসী : প্রধানমন্ত্রী টুকু-নয়ন গ্রেফতার: যুবদলের বিক্ষোভের ডাক পশ্চিমাদের বেঁধে দেওয়া তেলের দাম প্রত্যাখ্যান করলো রাশিয়া বুস্টার ডোজের আওতায় ৬ কোটি ৬ লাখের বেশি মানুষ সকাল থেকেই মিছিল নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থলে যাচ্ছেন নেতাকর্মীরা বিমান পরিবহনে সুরক্ষায় চীন থেকেও এগিয়ে ভারত! উত্তপ্ত রাজনীতি, হঠাৎ থমথমে রাজধানী বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু নামল ৬শ’তে, শনাক্ত আরও ৩ লাখ তুলে নেওয়া নয়; যুবদল সভাপতিসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে: ডিবি প্রথম দল হিসেবে কোয়ার্টারে নেদার‌ল্যান্ডস আমিন বাজার থেকে যুবদল সভাপতি টুকু আটক সমাবেশ বানচাল করতেই নয়াপল্টনে ককটেল বিস্ফোরণ: রিজভী

বকশিশ কম দেওয়ার ক্ষোভে অক্সিজেন খুললেন ওয়ার্ডবয়, মারা গেলেন রোগী

  • বুধবার, ১০ নভেম্বর, ২০২১

ঢাকা: বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওয়ার্ডবয় চাহিদা মতো বকশিশের টাকা না পেয়ে অক্সিজেন মাস্ক খুলে দেওয়ায় এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (০৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (শজিমেক) সার্জারি বিভাগে ঘটনাটি ঘটে। ঘটনা জানাজানির পর থেকেই অভিযুক্ত ওয়ার্ডবয় পলাতক রয়েছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা।

ঘটনার স্বীকার রোগীর নাম বিকাশ চন্দ্র দাস (১৮)। তিনি গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার শিয়ালকুন্ডি গ্রামের বিশু দাসের ছেলে।

নিহতের চাচা শচীন চন্দ্র বলেন, তার ভাতিজা বিকাশ চন্দ্র সন্ধ্যা ৭টায় সাঘাটায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হন। এরপর স্থানীয় লোকজন তাকে সাঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে তারা হাসপাতালে গেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলে।

এরপর শজিমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে হাসপাতালের ওয়ার্ডবয় দুলু স্ট্রেচারে করে ৩য় তলায় সার্জারি বিভাগে নিয়ে গিয়ে ৫০০ টাকা বকশিশ দাবি করেন। কাছে টাকা না থাকায় বিকাশের বাবা বিশু দাস ১৫০ টাকা দিতে চান। কিন্তু ওয়ার্ড বয় ২০০ টাকা দাবি করেন।

৫০ টাকা তাৎক্ষণিক না পাওয়ার ক্ষোভে ওয়ার্ডবয় রেগে গিয়ে রোগীর মুখ থেকে অক্সিজেন মাস্ক খুলে দেন। এর পরপরই বিকাশের শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। তখন তারা ওয়ার্ডবয়কে অক্সিজেন লাগিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন কিন্তু ওয়ার্ডবয় দুলু ৫০ টাকা না দিলে লাগাবেন না বলে জানান।

এরপর তারা নিজেরাই বিকাশের মুখে অক্সিজেন লাগিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেন। যখন তার ভাতিজার নাক দিয়ে শ্লেষ্মা বের হওয়া শুরু করে তখন ওয়ার্ডবয় পুনরায় অক্সিজেন লাগিয়ে দেন।

এরপর পর দেখা যায় রোগী আর শ্বাস নিচ্ছে না দেখে ওয়ার্ড বয় সেখান থেকে পালিয়ে যান। পরে ডাক্তার এসে রোগীকে মৃত ঘোষণা করেন।

বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার পরপরই পুলিশ পাঠিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। ঘটনার পর থেকেই ওয়ার্ডবয় দুলু পালিয়ে গেছে। তাকে খোঁজা হচ্ছে। তাদের কাছে অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved