শিরোনাম :
বগুড়া-৪ আসনে ৮৩৪ ভোটে হারলেন হিরো আলম আরও বিপুল পরিমাণ সয়াবিন তেল কিনবে সরকার উপ-নির্বাচনে সুষ্ঠু ভোটের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্রের বিজয় হয়েছে: কাদের ডিসেম্বরেই সংসদ নির্বাচন যে কৌশলে এরদোগানকে হারাতে চান বিরোধীরা জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে মারা গেছেন ৬ জন অনলাইনে ঘোষণা দিয়ে আনা যাবে ডলার আদানি কেলেঙ্কারি : আতঙ্কে ভারতীয় শেয়ার ছাড়ছেন বিদেশিরা সূচকের সাথে বেড়েছে লেনদেন হজে যেতে এবার জনপ্রতি খরচ হবে ৬ লাখ ৮৩ হাজার টাকা চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভোটকেন্দ্রের ভেতর থেকে ককটেল উদ্ধার সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলায় পরবর্তী সাক্ষ্য ৭ ফেব্রুয়ারি ভাষাশহীদদের সম্মানে বাংলায় রায় দিলেন হাইকোর্ট সূচকের সামান্য উত্থানে লেনদেন চলছে শীতকালে ১৬ গুণ বেশি দূষিত ঢাকার বায়ু, শীর্ষে শাহবাগ

প্রাথমিকে শিক্ষক বদলি ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু

  • বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২

ঢাকা : সারাদেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলির অনলাইন আবেদন আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করা হবে। এটি চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর এক সপ্তাহের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম। আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবস-২০২২ আয়োজন উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বর্তমানে শুধুমাত্র আন্তঃউপজেলা ও উপজেলার বাইরে শিক্ষকরা বদলি হতে পারবেন। জেলা ও মহানগর পর্যায়ে এ বদলি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। অনলাইন মাধ্যমে এ কার্যক্রম চলবে।

সম্প্রতি পাইলটিং কার্যক্রম সফল হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম।

তিনি বলেন, বর্তমানে সারাদেশে ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে। বর্তমানে তৃতীয় ধাপে কয়েকটি জেলায় মৌখিক পরীক্ষা চলছে। সেটি অক্টোবরের আগে শেষ হবে। অক্টোবরের মধ্যে চূড়ান্তভাবে বিজয়ীদের ফলাফল প্রকাশ করে যোগদান দেওয়া হবে।

সিনিয়র সচিব আরও বলেন, বলেন, সারাদেশের অনেক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদ শূন্য রয়েছে। সঠিক সংখ্যা নির্ণয়ে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম আগে করা হবে। শিক্ষকদের বদলি শেষে শূন্য আসনের সঠিক সংখ্যা পাওয়া যাবে। তার ওপর ভিত্তি করে সব শূন্য পদে যোগ্যদের নিয়োগ দেওয়া হবে।

প্রাথমিকে মিড ডে মিল কর্মসূচি কবে থেকে চালু করা হবে জানতে চাইলে আমিনুল ইসলাম বলেন, মিড ডে মিল কর্মসূচি বাস্তবায়ন বর্তমান সরকারের একটি নির্বাচনী ইশতেহার। প্রধানমন্ত্রী এটি চলমান রাখতে গুরুত্ব দিয়েছেন। স্কুলগুলোতে মিড ডে মিল হিসেবে যে বিস্কুট বিতরণ করা হতো সেটির স্বাদ-গন্ধ নিয়ে নানা বির্তক তৈরি হয়। সে কারণে নতুন করে এটি নিয়ে ফিজিবিলিটি স্টাডি করা হচ্ছে। স্কুলে কী ধরনের খাবার দেওয়া হবে তা নির্ধারণ করা হবে। আগামী বছর থেকে দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ কার্যক্রম চালু করা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা উপমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মহিবুর রহমান প্রমুখ।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved