শিরোনাম :
হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু রাতে র‍্যাবের সাঁড়াশি অভিযান, ৩১ ছিনতাইকারী আটক বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু বেড়েছে, শনাক্ত সাড়ে ৭ লাখ পাঁচ দিনে এলো ৫ হাজার কোটি টাকা রেমিট্যান্স লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবি, নিহত ২২ অভিবাসী রাশিয়া-ইরান-ভারতের নতুন করিডোর, চ্যালেঞ্জ ছুড়বে পশ্চিমাদের! পদ্মা সেতুর নাট খোলা বায়েজিদের জামিন নামঞ্জুর ভোটকেন্দ্র দখল ও গোপনে সিল মারার অপসংস্কৃতি টিকিয়ে রাখতেই ইভিএমে বিএনপির ভয় : তথ্যমন্ত্রী দাম কমলো স্বর্ণের মগবাজারে নিজ ফ্লাটে চিকিৎসকের অর্ধগলিত লাশ মালয়েশিয়ায় কর্মী যাওয়ার খরচ নির্ধারণ বাংলাদেশে করোনায় আরও ৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৭২৮ চীন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মিথ্যা তথ্য, বাংলাদেশকে সতর্ক করলেন লি জিমিং বন্যায় মৃত্যুর মিছিলে আরও তিনজন সহ, মোট ১১০ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৩০০ কোটি টাকা

নাইজেরিয়ায় ভবন ধসে নিহত বেড়ে ১৫

  • বুধবার, ৩ নভেম্বর, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নাইজেরিয়ার রাজধানী লাগোসে নির্মাণাধীন বহুতল ভবন ধসের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৫ জনে দাঁড়িয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছেন বহু মানুষ। ঘটনাস্থলে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছেন জরুরি উদ্ধারকর্মীরা। তবে ঠিক কতজন নিখোঁজ রয়েছেন সে সংখ্যা কেউ নিশ্চিত করেনি।

নাইজেরিয়ার জাতীয় জরুরি ব্যবস্থাপনা সংস্থার মুখপাত্র ইব্রাহিম ফারিনলোয়ি ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, ধসে পড়া ভবনটি থেকে আরও কয়েকজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা ১৫, জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ৯ জনকে।

এদিকে নিখোঁজ স্বজনদের খোঁজে ঘটনাস্থলে অবস্থান করছেন অনেকে। বোনের খবর জানতে অপেক্ষা করছেন ফাওয়াস সান্নি ও আফোলাবি সান্নি। চোখ দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়া ফাওয়াস এ সময় বলেন, দুর্ঘটনার সময় আমার বোন ভবনের ভেতরে ছিল।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ভবনটির নির্মাণাধীন কোম্পানি অনুমোদন নেওয়ার তুলনায় ছয়তল বেশি নির্মাণ করায় দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

লাগোস স্টেট বিল্ডিং কন্ট্রোল এজেন্সির জেনারেল ম্যানেজার গোবলাহান ওকি জানান, ১৫তলা নির্মাণের অনুমতি নিয়ে ২১তলা করা হয়েছিল। আর ভবন নির্মাণে ব্যবহৃত সরঞ্জামও মানসম্মত ছিল না।

লাগোসের ইকোয়িতে নির্মাণাধীন ২১তলার ভবনটি স্থানীয় সময় সোমবার (১ নভেম্বর) ধসে পড়ে। ধসের পড়ার ঘটনার পরপরই উদ্ধারকর্মীরা কাজ শুরু করে।

ভবনটির চার নির্মাণ শ্রমিক একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে বলেছিলেন, ধসের পড়ার সময় অনেকে এর ভেতরে কাজ করছিলেন। ভবনে অন্তত ৪০ জন ছিলেন, ১০ জনের মরদেহ দেখেছি কারণ আমি ধ্বংসস্তূপের মধ্যে গিয়েছি, বলেন পিটার আজাবি নামে ২৬ বছর বয়সী ভবনটির এক শ্রমিক। মারা যাওয়াদের মধ্যে একজন আমার কাছের বলেও জানান তিনি।

আফ্রিকার সবচেয়ে জনবহুল এই দেশটিতে প্রায়ই ভবন ধসের ঘটনা ঘটে। ভবন নির্মাণের নীতিমালা খুব কমই মানা হয় দেশটিতে। এছাড়া ভেজাল ও নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগও প্রায়ই পাওয়া যায়।

খবর আলজাজিরা

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved