শিরোনাম :
তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স নভেম্বরে ১০ ডিসেম্বর সমাবেশ কি বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের সাথে বিএনপির সংহতি প্রকাশ : তথ্যমন্ত্রীর আমরা সাংবিধানিক অধিকারে বিশ্বাস করি : চুন্নু গাইবান্ধায় উপ-নির্বাচন : রিটার্নিং কর্মকর্তা-এডিসিসহ ১৩৩ জনের শাস্তির সিদ্ধান্ত ইসির বিএনপির সমাবেশ হলেই নাটক শুরু হয় : কাদের সাবেক ছাত্রনেতা খায়রুল খুনের মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন শিক্ষাব্যব্যস্থাকে সনদমুখী থেকে দক্ষতামুখী করতে হবে: পলক নয়াপল্টনে অনুমতি না দিলে সময়ই বলে দেবে : মির্জা আব্বাস করোনার টিকার চতুর্থ ডোজ দেওয়া হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডিসেম্বরকে বীর মুক্তিযোদ্ধা মাস হিসেবে ঘোষণার দাবি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ৯৪ বারের মতো পেছাল সাগর-রুনি হত্যা মামলার প্রতিবেদন ব্যাংক কাদের ঋণ দিচ্ছে, জানাতে হবে ওয়েবসাইটে : হাইকোর্ট আয়াতের বিচ্ছিন্ন মাথা পাওয়া গেল স্লুইস গেটে আজ বিশ্ব এইডস দিবস গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম যাচাই-বাছাই করে সিদ্ধান্ত : প্রতিমন্ত্রী

দেশে ‘নলেজ সেন্টার’ স্থাপনে আন্তর্জাতিক সমর্থন চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

  • শুক্রবার, ১২ নভেম্বর, ২০২১

ঢাকা: সারা বিশ্বই দিন দিন প্রযুক্তির ওপর সম্পূর্ণভাবে নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে। তাই বিশ্বের বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের প্রযুক্তিগত সমাধানের প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করতে বাংলাদেশে একটি ‘নলেজ সেন্টার’ স্থাপন করতে আন্তর্জাতিক সমর্থন প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (১২ নভেম্বর) প্যারিসে সাউথ-সাউথ বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে এ কথা জানান প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে প্রধামনন্ত্রী ইউনেস্কো সদর দপ্তরের ইউনেস্কো-বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইন্টারন্যাশনাল প্রাইজ ফর ক্রিয়েটিভ ইকোনমি পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে দেওয়া এক ভাষণে বিশ্ব সম্প্রদায়ের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং প্রযুক্তিগত অগ্রগতিতে অবদান রাখতে বাংলাদেশের আগ্রহের কথা প্রকাশ করেছেন।

সরকারপ্রধান শেখ হাসিনা বলেন, ‘কয়েক দশক ধরে আমাদের দেশের উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সদয় সমর্থনকে আমরা বিনীতভাবে স্বীকার করি। আমরা এখন আমাদের সীমিত সামর্থ্য দিয়ে বিশ্ব সম্প্রদায়ের উন্নতির জন্য আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং প্রযুক্তিগত অগ্রগতিতে অবদান রাখতে চাই।’

প্রধামনন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা দৃঢ় বিশ্বাস করি যে, সৃজনশীল অর্থনীতিতে বিনিয়োগের ফলে আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং প্রযুক্তিগত অগ্রগতির সম্মিলিত লক্ষ্য পূরণ সম্ভব হবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সৃজনশীল অর্থনীতির জন্য ইউনেস্কো-বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আন্তর্জাতিক পুরস্কার’ প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত বিশ্ব মানবতা ও শান্তিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানের প্রতি সবচেয়ে উপযুক্ত সম্মান।’

প্রধানমন্ত্রী আশা প্রকাশ করে আরও বলেন, এই আন্তর্জাতিক পুরস্কার যা বৈশ্বিক অগ্রাধিকার অর্থাৎ লিঙ্গ সমতা ও গোষ্ঠী হিসেবে যুবকদের অগ্রাধিকারে অবদান রেখে সৃজনশীল অর্থনীতির ক্ষেত্রে ইউনেস্কোর প্রচেষ্টাকে আরও বেগবান করবে।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved