শিরোনাম :
ফতুল্লায় বীর মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা, টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট রাজধানীতে পুলিশের অভিযানে মাদকসহ আটক ৫০ ট্যাঙ্কের পর কি যুদ্ধবিমান পাবে ইউক্রেন? পাকিস্তানে মসজিদে বোমা হামলায় নিহত বেড়ে ১০০ বিশ্বজুড়ে করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েছে আবারও বড় মেয়েকে নিয়ে পালানোর চেষ্টা জাপানি মায়ের ভারতে বহুতল ভবনে আগুন, নিহত ১৪ নানা অপরাধে চাকরিচ্যুতিসহ শাস্তি পেলেন ইসির ৬৯ জন ভুল তথ্যে র‌্যাবের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল আমেরিকা : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবারও বাংলাদেশের কোচ হাতুরুসিংহে বিএনপির দম ফুরিয়ে গেছে বলে নীরব পদযাত্রা করছে: কাদের সাহস থাকলে দেশে মামলা ফেস করুন, তারেককে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সরকারের হাতে টাকা নেই তাই বিদ্যুতের দাম বাড়াচ্ছে: মোশাররফ ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়াতে মুসলিম উম্মাহর প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ব্লক মার্কেটে ১২৫ কোটি টাকার লেনদেন

দুগিনা হত্যায় ইউক্রেন সরকার জড়িত: মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা

  • বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর, ২০২২

ঢাকা : দারিয়া দুগিনা হত্যায় ইউক্রেন সরকার জড়িত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা।

ইউক্রেন সরকারই রুশ সাংবাদিক দারিয়া দুগিনাকে হত্যা করেছে বলে বিশ্বাস করে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইউক্রেনের সরকারের একাংশের নির্দেশেই এ হত্যাকাণ্ড পরিচালনা করা হয়েছিল। স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তদন্ত বিষয়ক তথ্য গোপন রাখা ও স্পর্শকাতর কূটনীতির স্বার্থে ঠিক কারা এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিল কিংবা ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি আদৌ এ হত্যাকাণ্ডে অনুমতি দিয়েছিলেন কিনা সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করা হচ্ছে না।

গত ২০ আগস্ট রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠ মিত্র এবং তাঁর পরামর্শদাতা বলে পরিচিত আলেকজান্দর দুগিনের মেয়ে দারিয়া দুগিনাকে হত্যা করা হয়। ২৯ বছর বয়সী এই নারী একটি রুশ জাতীয়তাবাদী টিভি চ্যানেলের ভাষ্যকার ছিলেন। তাঁর গাড়িতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে তিনি মারা যান। সে সময় রাশিয়া জানিয়েছিল, ‘বিশেষ কারণে’ দারিয়াকে হত্যা করা হয়েছে এবং এ জন্য ইউক্রেনই দায়ী। দারিয়া দুগিনার হত্যাকাণ্ডের বদলা নেওয়ারও ঘোষণা দেয় রাশিয়া।

অবশ্য সেসময় এ হত্যাকাণ্ডে ইউক্রেন সরকার তাদের জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেছে। মার্কিন গোয়েন্দা মূল্যায়নের কথা জানতে চাওয়া হলে জেলেনস্কির উপদেষ্টা মিখাইলো পোদোলিয়াক আবারও ওই হত্যাকাণ্ডে তাদের যুক্ত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেন।

নিউইয়র্ক টাইমসকে তিনি বলেন, ‘আমি আবারও বলব, এক দেশের সঙ্গে আরেক দেশের মধ্যে যুদ্ধে সময়ে যেকোনো হত্যাকাণ্ডের পেছনে কিছু বাস্তবিক তাৎপর্য থাকে। সেখানে কিছু সুনির্দিষ্ট কৌশলগত লক্ষ্য থাকে। দুগিনার মতো কাউকে হত্যা করা কোনো কৌশলগত লক্ষ্য হতে পারে না।’

তবে মার্কিন কর্মকর্তারা বলেছেন, ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনী, সিকিউরিটি সার্ভিসেস এবং জেলেনস্কির অফিসসহ ইউক্রেনে ক্ষমতাসীন সরকারের প্রতিদ্বন্দ্বী গোষ্ঠীর ক্ষমতা কেন্দ্রগুলোর বিষয়ে তাদের কাছে কোনো পরিপূর্ণ চিত্র নেই। কাজেই ওই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যে ইউক্রেন সরকারের একাংশ যুক্ত নয় তা একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved