শিরোনাম :
শুক্র ও শনিবার ব্যাংক খোলা বিশ্বজুড়ে করোনায় দিনের ব্যবধানে শনাক্ত কমেছে ৫১ হাজার ডেনমার্কের শপিংমলে বন্দুকধারীর হামলা, নিহত ৩ মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ‘আলবদর’ নেতা আমিনুল গ্রেফতার তুরস্কে রাশিয়ার জাহাজ আটক দেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে আরও ৪২ জন হাসপাতালে ভর্তি বাড়ল এলপি গ্যাসের দাম বাংলাদেশে করোনায় আরও ২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৯০২ বিদায়ী অর্থবছরে রেমিট্যান্স প্রবাহ কমলো ১৫ শতাংশ ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, পাসের হার ১৪.৩০ হাজীরা কেন কাফনের মতো সাদা কাপড় পরেন ডব্লিউটিওতে ভারতের বিরোধিতা পাকিস্তানে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নিহত ১৯ নির্বাচনী ইশতেহারে দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভুলিনি : প্রধানমন্ত্রী সূচক পতনে লেনদেন চলছে

কোহলির ফিফটিতে পাকিস্তানকে ১৫২ রানের টার্গেট ভারতের

  • রবিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২১

স্পোর্টস ডেস্ক : ইতিহাস গড়তে পাকিস্তানের প্রয়োজন ১৫২ রান। চলতি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বে নিজেদের প্রথম প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান। এ ম্যাচে আগে ব্যাট করে স্কোর বোর্ডে ১৫১ রানের পুঁজি পেয়েছে ভারত। ইতিহাস গড়তে বাবর আজমের দলকে করতে হবে ১৫২ রান।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস ভাগ্য পাকিস্তানের পক্ষে। তবে নিজেরা আগে ব্যাট না করে প্রতিপক্ষকে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান বাবর। অধিনায়কের সিদ্ধান্ত যে সঠিক ছিল, সেটি প্রমাণ দিতেই ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মার উইকেট তুলে নেন শাহীন আফ্রিদি। নিজের খেলা প্রথম বলেই শূন্য হাতে সাজঘরে রোহিত। সুবিধা করতে পারেননি ইনফর্ম ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুলও। আফ্রিদির দ্বিতীয় শিকার হন ৩ রান করে।

সূর্যকুমার যাদব ১১ রান করে আউট হলে দলীয় ৩১ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে ভারত। সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও ঋষভ পান্ত। চতুর্থ উইকেটে দুজন যোগ করেন ৫৩ রান। শাদাব খানের বলে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে আউট ৩৯ বলে আউট হলে ভাঙে তাদের জুটি। সমান ২টি করে চার-ছক্কায় ৩০ বলের ইনিংসটি সাজান পান্ট।

পরে রবীন্দ্র জাদেজাকে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন কোহলি। ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট করে ৪৫ বলে ফিফটির স্বাদ পান ভারতীয় অধিনায়ক। এতে রেকর্ড বুকে জায়গা করেন নেন তিনি। মাহেলা জয়াবর্ধনেকে (৯) ছাড়িয়ে টি-টোয়েন্টিতে এখন সর্বাধিক ১০টি ফিফটি কোহলির দখলে। সে ইনিংসটি অবশ্য আর বড় করতে পারেননি কোহলি। আফ্রিদির তৃতীয় শিকার হন ৫৭ রানে। ৪৯ বল খেলে ৫টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন তিনি।

সুবিধা করতে পারেননি জাদেজা, হাসান আলীর দ্বিতীয় শিকার হন ১৩ রান করে। পরে হার্দিক পান্ডিয়ার ১১ রান করে ফিরলে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫১ রানের পুঁজি পায় ভারত। ইতিহাস গড়তে পাকিস্তানের প্রয়োজন ১৫২ রান। পাকিস্তানের হয়ে আফ্রিদি সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট নেন।

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই যেন সেয়ানে সেয়ানে লড়াই। দুই দলের মাঠের যুদ্ধে কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলতে নারাজ। তবে বিশ্বকাপে মঞ্চে একেবারেই ভিন্ন রূপ। পাকিস্তানের বিপক্ষে একচেটিয়া দাপট ভারতের। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে নিদারুণ অবস্থা পাকিস্তানের। কুড়ি ওভারের প্রথম বিশ্বকাপ অর্থাৎ ২০০৭ সালে পাকিস্তানকে হারিয়েই বিশ্বকাপ জয় করেছিল ভারত। সবে মিলিয়ে এই ফরম্যাটের বিশ্বকাপে খেলা ৫ ম্যাচের ৫টিতেই হার পাকিস্তানের। এবার ইতিহাস বদলানোর সুযোগ তাদের সামনে।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved