শিরোনাম :
বাংলাদেশে করোনায় আরও ১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৫৯ তেলের মুনাফায় ভাসছে সৌদি মা-বাবার সনদ ছাড়াই করা যাবে জন্মনিবন্ধন আগামী বছর থেকে সপ্তাহে পাঁচ দিন ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী সু চির আরও ছয় বছরের কারাদণ্ড রাজধানীতে ক্রেনের গার্ডার পড়ে প্রাইভেটকারের ৪ যাত্রী নিহত চকবাজারে আগুন: ৬ মরদেহ উদ্ধার অস্বাভাবিক তেলের মূল্যবৃদ্ধির ফলে দেশ মহাসংকটে পড়বে: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সংকটে নেই, বিশ্ব সংকটে আছে: নৌ-প্রতিমন্ত্রী আমার রক্তের ভেতরে আওয়ামী লীগ: সোহেল তাজ চকবাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে ডিম্বানু-শুক্রাণু ছাড়াই তৈরি হলো পৃথিবীর প্রথম ভ্রূণ জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নে এগিয়ে যেতে চাই: তাপস সুদানে ভয়াবহ বন্যায় নিহত ৫২ প্রবাসীর স্ত্রীকে অচেতন করে ভিডিও ধারণ, গ্রেফতার ২

কলকাতা পৌরসভার ভোটে জয়ী ২১ মুসলিম, ১৮ তৃণমূল প্রার্থী

  • বুধবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতা পৌরসভা নির্বাচনে চমক দেখালো তৃণমূল। ভোট বাড়ানোয় নজিরবিহীন সাফল্য দেখিয়ে পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতার পৌরসভাও জিতে নিল তৃণমূল কংগ্রেস। বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের তাক লাগানো জয়ের আট মাস পর অনুষ্ঠিত পৌর ভোটে দলটির সার্বিক ভোটপ্রাপ্তির হার বেড়েছে প্রায় ১৫ শতাংশ। ১৪৪টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৩৪টি ওয়ার্ডে জয়ী হয়েছে দলটি।

তৃণমূলের জয়ী মুসলিম প্রার্থীরা হলেন- কলকাতার বিদায়ী মেয়র ও রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (৮২ নম্বর ওয়ার্ড), ইকবাল আহমেদ (২৯ নম্বর ওয়ার্ড), মো. জসিম উদ্দিন (৩৯ নম্বর ওয়ার্ড), রেহানা খাতুন (৪৪ নম্বর ওয়ার্ড), আমিরুদ্দিন (৫৪ নম্বর ওয়ার্ড), কাইসার জামিল (৬০ নম্বর ওয়ার্ড), মানজার ইকবাল (৬১ নম্বর ওয়ার্ড), সানা আহমেদ (৬২ নম্বর ওয়ার্ড), সাম্মি জাহান বেগম (৬৪ নম্বর ওয়ার্ড), ফৈয়াজ আহমেদ খান (৬৬ নম্বর ওয়ার্ড), নিজামুদ্দিন সামস (৭৫ নম্বর ওয়ার্ড), সামিমা রেহান খান (৭৭ নম্বর ওয়ার্ড), মো. আনোয়ার খান (৮০ নম্বর ওয়ার্ড), শামস ইকবাল (১৩৪ নম্বর ওয়ার্ড), শামসুজ্জামান আনসারি (১৩৬ নম্বর ওয়ার্ড), ফরিদা পারভীন (১৩৮ নম্বর ওয়ার্ড), শেখ মুস্তাক আহমেদ (১৩৯ নম্বর ওয়ার্ড) ও আবু মো. তারিখ (১৪০ নম্বর ওয়ার্ড)।

কলকাতা পৌরসভার ইতিহাসে রেকর্ড জয়ের ব্যবধানে জিতে নজির গড়েছেন রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা ও অসামরিক প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জাভেদ আহমেদ খানের পুত্র ফৈয়াজ আহমেদ খান। ৬৬ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রার্থী ফৈয়াজের জয়ের ব্যবধান ৬২ হাজারের বেশি। ২০১৫ সালের পৌরভোটেও ৩০ হাজারের বেশি ভোটে জিতে রেকর্ড গড়েছিলেন ফৈয়াজ। অন্যদিকে গত মার্চ-এপ্রিল মাসে বিধানসভার নির্বাচনে পরাজয়ের পর বিজেপির কাছে কলকাতা পুরসভা নির্বাচন ছিল কার্যত প্রেস্টিজ ফাইট। আর সেই লক্ষ্যেই এবার ৯ জন মুসলিমকে প্রার্থী করেছিল তারা। যদিও তাদের কোন প্রার্থীই এই পুরসভার নির্বাচনে জয়ের মুখ দেখতে পারেনি। কংগ্রেসও ৩০ জনের বেশি মুসলিমকে প্রার্থী করেছিল। এর মধ্যে একমাত্র জয়ী প্রার্থী ১৩৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ওয়াসিম আনসারি।

স্বতন্ত্র দলের তিন জয়ী প্রার্থীর মধ্যে ২ জনই হলেন মুসলিম। ৪৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জয়ী আয়েশা কানিজ এবং ১৩৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকে বিজয়ী রুবিনা নাজ। যদিও ২০১৫ সালের কলকাতা পৌরসভার নির্বাচনের তুলনায় এবার মুসলিম কাউন্সিলের সংখ্যা কমেছে। ওই বছর মুসলিম কাউন্সিলর ছিলেন ২৩ জন, এবার দুইটি কমে হয়েছে ২১ জন। এর মধ্যে ১৪১ নম্বর ওয়ার্ডে পরাজিত হয়েছেন বিদায়ী কাউন্সিলর তথা কংগ্রেসের প্রার্থী মমতাজ বেগম। ওই ওয়ার্ডে জয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র দলের প্রার্থী পূর্বাশা নস্কর। অন্যদিকে ৭৮ নম্বর ওয়ার্ডের বিদায়ী কাউন্সিলর নিজামুদ্দিন শামসের পরিবর্তে ওই ওয়ার্ডে এবার সোমা দাসকে প্রার্থী করেছিল তৃণমূল। ফলে দুইজন মুসলিম কাউন্সিলর কমেছে।

২০০৯ সাল থেকে বড় আকারে নির্বাচনী সাফল্য দেখতে শুরু করে বাংলার বর্তমান শাসকদল। ২০১১ সালে রাজ্যে ক্ষমতা দখলের পরে ২০১৬ এবং ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে শক্তি বাড়িয়েছে তৃণমূল। কিন্তু এতদিন একটি ‘মাইলস্টোন’ থেকে আর একটিতে উত্থানের ব্যবধান ছিল কম। এবার সত্যিই যেন ‘হাইজাম্প’। কলকাতায় ১৪৪ ওয়ার্ডের মধ্যে ১৩৪টি তৃণমূলের। এমন জয় যে মিলতে পারে তার ইঙ্গিত অবশ্য আগেই দিয়েছিল স্থানীয় গণমাধ্যম।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved