শিরোনাম :
ডলারের দাম বাড়ার প্রভাব প্রবাসী আয়ে খাদ্য বিপর্যয় আসছে ৪৪তম বিসিএসের প্রিলি পরীক্ষা ২৭ মে কম ক্ষতিগ্রস্ত মুদ্রার তালিকায় বিশ্বে দ্বিতীয় টাকা দেশে করোনায় মৃত্যুহীন দিনে নতুন শনাক্ত ২৯ মাঙ্কিপক্স: বিমানবন্দরগুলোতে সতর্কতা জারি আগামী কান উৎসবে বাংলাদেশের স্টল : তথ্যমন্ত্রী ১৬ দেশে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ সৌদি আরবের আজও বড় ধস পুঁজিবাজারে হাজী সেলিমকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ মুক্ত গণমাধ্যম ছাড়া রাষ্ট্র দাঁড়াতে পারে না: ফখরুল পদ্মা সেতুর কথা শুনলে বিএনপি নেতাদের মুখ কালো হয়: কাদের দেশে নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় সামনের সারিতে খালেদা জিয়া : রিজভী এই সরকার নির্বাচনের ব্যবস্থা ধ্বংস করে ফেলেছে: দুদু ২০ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব অর্থনীতি সমিতির

ওমিক্রন ঠেকাতে সীমান্ত বন্ধের কথা ভাবছে সরকার: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • সোমবার, ৩ জানুয়ারী, ২০২২

ঢাকা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, ‘ভারতের পশ্চিমবঙ্গে যে হারে ওমিক্রনের সংক্রমণ বাড়ছে তাতে বেনাপোল স্থলবন্দর বন্ধ করতে হয় কিনা তা নিয়ে ভাবছি। আমরা এখনও সিদ্ধান্ত নেইনি। বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণ বা বিস্তারে আমরা খুবই উদ্বিগ্ন।’

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণ বাড়ায় দেশটির সঙ্গে আবারও সীমান্ত বিশেষত বেনাপোল স্থলবন্দর বন্ধের কথা ভাবছে সরকার। পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন সোমবার সন্ধ্যায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানিয়েছেন।

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘ভারতের পশ্চিমবঙ্গে যে হারে ওমিক্রনের সংক্রমণ বাড়ছে তাতে বেনাপোল স্থলবন্দর বন্ধ করতে হয় কিনা তা নিয়ে ভাবছি। আমরা এখনও সিদ্ধান্ত নেইনি। বিভিন্ন তথ্য-উপাত্তে আমরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছি। বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণ বা বিস্তারে আমরা খুবই উদ্বিগ্ন।

‘আমরা আজও (সোমবার) আলাপ করছিলাম যে আমাদের সভা করা দরকার। পশ্চিমবঙ্গে যেভাবে ওমিক্রনের সংক্রমণ বাড়ছে তাতে বেনাপোল বর্ডার বন্ধ করতে হয় কিনা তা নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। আশা করছি পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ভালো পরামর্শ দিতে পারবে।’

র‍্যাবের সাবেক ও বর্তমান কয়েকজন কর্মকর্তার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি জে ব্লিনকেনকে লেখা চিঠির জবাবের অপেক্ষায়ে আছেন বলে জানান ড. মোমেন।

তিনি বলেন, আমরা সব দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক চাই। কোনও কোনও দেশ আমাদের ওপর (বাংলাদেশ সরকার) অসন্তুষ্ট। আমরা তার কারণ খুঁজছি, তাদের অসন্তোষ দূর করার চেষ্টা করছি। আমাদের বেসিক প্রিন্সিপাল- কারও সঙ্গে শত্রুতা নয়, সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব। আমরা এটা মেনেই কাজ করছি। আমরা সেই নিরপেক্ষ পলিসিটা ধরে রাখতে চাই। আমরা সবার সঙ্গে আরও বেশি করে সম্পৃক্ত হতে চাই।

কিছু কিছু দেশ কী কারণে অসন্তুষ্ট সেটি আমরা রেকটিফাই করার চেষ্টা করব। তারা কোনও মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে ক্ষুব্ধ হয়ে থাকলে আমরা তাদের সত্য তথ্য দিয়ে বুঝাব। আশা করি তারা আমাদের ঝুঝবে। কারণ ওইসব দেশের নেতৃত্বের পরিপক্বতা রয়েছে। তারা দায়িত্বশীলও বটে। তাছাড়া আমরা আমাদের দুর্বলতাগুলো চিহ্নিত করে তা সংশোধনের চেষ্টা করব।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে বড়দিন ও নিউ ইয়ারের ছুটি শেষে সোমবারই প্রথম অফিস খুলেছে। আমার পাঠানো চিঠি ইতোমধ্যে গন্তব্যে পৌঁছে গেছে। দেখি কী জবাব আসে। যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে পাবলিকলি যা বলেছি, চিঠিতেও তা-ই লিখেছি। আমরা তাদের জবাবের অপেক্ষায় আছি। আশা করি তাদের জবাবে পজিটিভ কিছু আসবে। আমরা এ নিয়ে আশাবাদী।

বিগত বছরকে বাংলাদেশের বড় অর্জন এবং সাফল্যের বছর উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা সেটি ধরে রাখার চেষ্টা করব। বিদেশে বাংলাদেশের মিশনগুলোতে সেবা ও অন্যান্য কার্যক্রমে ইতিবাচক অনেক পরিবর্তন এসেছে। মিশনগুলোতে দুর্নীতির প্রশ্নে শেখ হাসিনার সরকার জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে। আমি বলবো- পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কোনও কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যদি দুর্নীতির প্রমাণ হয় আমরা তাদের স্ট্রেইট বের করো দেব। এখানে দুর্নীতিবাজদের কোনও স্থান হবে না।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved