শিরোনাম :
চীন-রাশিয়া সদয় হলে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী বেহিসেবি বোলিং-ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশের হার পায়রা সেতু নির্মাণ প্রকল্পে ৫২ কোটি টাকা সাশ্রয় দেশে ডেঙ্গুতে একজনের প্রাণহানি, আরও শনাক্ত ১৭৯ সরকার সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টি করে বিএনপিকে দায়ী করছে: ফখরুল বাংলাদেশে করোনায় আরও ৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৭৫ ‘বাংলাদেশে চীনের উপস্থিতি ভারতের স্বার্থের সঙ্গে সাংঘর্ষিক’ শতভাগ মানুষ টিকা না পাওয়া পর্যন্ত মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি আওয়ামী লীগ ৭৫- এ বাকশাল করে গণতন্ত্র হত্যা করেছে : মোশাররফ সাম্প্রদায়িক হামলা নিয়ে প্রধান বিচারপতির উদ্বেগ প্রকাশ ফের পূর্ণ রাজ্যের মর্যাদা পাবে জম্মু-কাশ্মির: অমিত শাহ দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করলে একটি গোষ্ঠীর কদর বাড়ে : প্রধানমন্ত্রী আজ আন্তর্জাতিক ডলফিন দিবস রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৭৪ চাকরি করুন ঢাকা চেম্বার অব কমার্সে

এক মাসেই ডেভাবে চুল ঠিক করবেন

  • বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

লাইফস্টাইল ডেস্ক : এক মাসেই চুল ঠিক করার উপায় : অযত্নে আর অবহেলায় আমাদের চুল আর সুন্দর থাকে না। চুলের ধরন সুন্দর হলেও তা ঠিক রাখার জন্য নিয়মিত যত্ন করতে হয়।

যত্নের অভাবে চুল প্রাণহীন আর রুক্ষ হয়ে পড়ে। এটি সৌন্দর্য নষ্ট করার পাশাপাশি নষ্ট করে আত্মবিশ্বাসও। কারণ তখন নিজের প্রতি আস্থা রাখা কঠিন হয়ে পড়ে। তবে প্রাণহীন চুলে প্রাণ ফেরানো সামান্য কয়েকদিনে সম্ভব নয়। সেজন্য কিছুটা সময়ের তো দরকারই। মোটামুটি এক মাস যত্ন নিলে চুল আবার আগের মতো প্রাণবন্ত হয়ে উঠবে।

অয়েল মাসাজ : আমাদের মধ্যে অনেকে আছেন যারা তেল চিটচিটে হয়ে যাওয়ার ভয়ে চুলে তেল ব্যবহার করেন না। অথচ চুল সুন্দর রাখতে তেলের বিকল্প নেই। চুল কিংবা স্ক্যাল্প তেলতেলে থাকলে তেল ব্যবহার করার দরকার মনে করেন না অনেকে। তবে এ ধারণা একদমই ঠিক নয়।

প্রতিবার শ্যাম্পু করার আগে মাথায় তেল ব্যবহার করুন। আঙুলের ডগার সাহায্যে ভালোভাবে মাসাজ করে তেল লাগিয়ে নিন। এতে রক্তসঞ্চালন সঠিকভাবে হবে এবং চুলের গোড়া মজবুত হবে।

চুলে প্রয়োজনীয় পুষ্টি জোগাতে সাহায্য করে তেল। এর ফলে চুল পড়ার সমস্যা কমে। তবে বাজারের যেকোনো তেল ব্যবহারের বদলে ভেষজ বা ঘরে তৈরি তেল ব্যবহার করতে পারেন। তেল ভেজালমুক্ত হলে চুল সুন্দর রাখা সহজ হবে।

সঠিক শ্যাম্পু বেছে নিন : যেকোনো শ্যাম্পু দিয়েই চুল পরিষ্কার করবেন না। এতে উপকারের বদলে ক্ষতি হবে বেশি। শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে চুলের ধরন অনুযায়ী। শ্যাম্পু কেনার আগে দেখে নিতে হবে সেটি কোন ধরনের চুলের জন্য উপযোগী।

আপনার চুল যদি রুক্ষ হয় তবে তৈলাক্ত চুলের জন্য তৈরি শ্যাম্পু আপনার কাজে লাগবে না। যাদের ক্ষেত্রে খুশকির সমস্যা রয়েছে তাদের ব্যবহার করতে হবে অ্যান্টি ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু। এছাড়া স্ক্যাল্পে কোনো সমস্যা থাকলে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ মেনে শ্যাম্পু ব্যবহার করা উচিত।

চুলে কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট করা হলে করতে হবে বিশেষ যত্ন। এমন চুলে শ্যাম্পু ব্যবহার করার সময় খেয়াল রাখবেন সেটি যেন কালার গার্ড শ্যাম্পু হয়। আপনার চুলের ধরন যেমনই হোক না কেন, শ্যাম্পু হতে হবে সালফেট ফ্রি।

কন্ডিশনার লাগাতে ভুলবেন না : অনেকেই শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার ব্যবহারের প্রয়োজন অনুভব করেন না। কিন্তু আপনি যদি কন্ডিশনার ব্যবহার না করেন তবে চুল রুক্ষ আর ফ্রিজি হতে থাকবে। চুলে প্রাণ ফেরাতে কাজ করে কন্ডিশনার।

তবে অনেকে কন্ডিশনার ব্যবহারের ক্ষেত্রে একটি ভুল করেন। সেটি হলো, চুলে ব্যবহার করতে গিয়ে স্ক্যাল্পেও কন্ডিশনার ব্যবহার করে ফেলেন। এতে চুলের গোড়া আলগা হয়ে চুল পড়তে শুরু করে। তাই স্ক্যাল্পে নয়, চুলের গোছায় কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved