শিরোনাম :
স্বাধীনতার নামে সাংবাদিকতা নিয়ে রাজনীতি করা উচিত নয়: তথ্যমন্ত্রী তিন মাসে নির্যাতন ও হয়রানির শিকার ৫৬ সাংবাদিক : আসক দুই হেলিকপ্টার বিধ্বস্তেও ঘটনায় ৯ মার্কিন সেনা নিহত যুদ্ধাবস্থার কারণে বাংলাদেশে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি : শিক্ষামন্ত্রী মার্কিন নাগরিকদের দ্রুত রাশিয়া ছাড়ার আহ্বান খাবারের বিনিময়ে উত্তর কোরিয়ার অস্ত্র চায় রাশিয়া: যুক্তরাষ্ট্র ভারতে পাচারের সময় ৪০ হাজার ডলার জব্দ মধ্যপ্রদেশে মন্দিরে কূপ ধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫ আগারগাঁও থেকে দিয়াবাড়ি পর্যন্ত চালু হলো মেট্রোরেলের সব স্টেশন জাল নোট চেনার সহজ উপায় ফের বাড়ছে ব্রয়লার মুরগির দাম রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৪৪ গভীর রাতে বাড়ি ফিরেছে রাজধানীতে নিখোঁজ চার বান্ধবী বিশ্বজুড়ে করোনায় আরও ৪৮৫ জনের মৃত্যু, কমেছে শনাক্ত পর্ন তারকার মুখ বন্ধ রাখতে অর্থপ্রদানের মামলায় ট্রাম্প অভিযুক্ত

একনায়কতন্ত্রই পথ, কৃষি আইন বাতিল প্রসঙ্গে কঙ্গনা

  • শনিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২১

বিনোদন ডেস্ক : কৃষি আইনের পক্ষে ছিলেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। তবে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সেই আইন প্রত্যাহার করে নেওয়ায় তিনি ক্ষুব্ধ। প্রকাশ্যেই রাগ দেখিয়েছেন।

ইনস্টাগ্রামে দেওয়া এক পোস্টে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘তবে কী এবার রাস্তায় নামা মানুষই দেশের আইন ঠিক করবে। নির্বাচিত সরকার নয়? যদি তা-ই হয় তবে এই দেশটাও তো জিহাদি দেশ হয়ে গেল।’

কঙ্গনার মনে করেন, এর চেয়ে লজ্জার আর কিছু হতে পারে না।

শুক্রবার সকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন, কৃষকদের স্বার্থে তিনি বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ঘটনাচক্রে এদিন ছিল দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী কংগ্রেস নেত্রী ইন্দিরা গান্ধীর জন্মদিন। যার ভূমিকায় একটি ছবিতে অভিনয়ও করেছেন কঙ্গনা।

মোদির সিদ্ধান্তে প্রকাশ্যেই আপত্তি জানিয়ে কঙ্গনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া পোস্টে বলেন, ‘দেশের মানুষের যদি বোধ না থাকে তবে তাদের লাঠি দিয়েই শাসন করতে হবে। এ দেশে সেটাই একমাত্র সমাধান এবং একনায়কতন্ত্রই সেরা বিকল্প।’

এছাড়াও ইন্দিরার ছবি দিয়ে কঙ্গনা লিখেছেন শুভ জন্মদিন ‘ম্যাডাম প্রাইম মিনিস্টার’।

কৃষি আইন নিয়ে অবশ্য প্রথম থেকেই সরব ছিলেন কঙ্গনা। কৃষকদের আন্দোলনের বিরুদ্ধে বহুবার মন্তব্যও করেছেন। এই নিয়ে দেশের বহু তারকার সঙ্গে প্রকাশ্যেই টুইট যুদ্ধ হয়েছে তার। এমনকি যেসব বিদেশি ভারতের কৃষকদের সমর্থন করে নেট মাধ্যমে লিখেছিলেন তাদেরও কুরুচিকর আক্রমণের অভিযোগ ওঠেছিল কঙ্গনার বিরুদ্ধে।

একটি টুইটে আমেরিকার পপ তারকা রিহানাকে পর্ণ ছবির গায়িকা বলে মন্তব্য করেছিলেন কঙ্গনা। সেই মন্তব্যের জেরে টুইটার কঙ্গনার অ্যাকাউন্টটি ব্লক করে দেয়। আজও টুইটারে অভিনেত্রীর অ্যাকাউন্টটি নিষিদ্ধ রয়েছে।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved