শিরোনাম :
সরকারের তথাকথিত উন্নয়নে জনগণ ‘সাফার’ করছে: ফখরুল ইডেনের ‘অপরাধী চক্র’কে দ্রুত গ্রেফতার করতে হবে : আ স ম‌ রব মিয়ানমারের সাহস নেই আমাদের সরাসরি কিছু করার: পরিকল্পনামন্ত্রী প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুর্গোৎসব ইরানে ভূমিকম্পের আঘাত, আহত ৫ শতাধিক সবাইকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে : খাদ্যমন্ত্রী মিনিকেট নামে কিছু বিক্রি করা যাবে না : মন্ত্রিপরিষদ সচিব দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ২ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৩৪৪ জন ইউক্রেনকে আরও ৬২৫ মিলিয়ন ডলারের সামরিক সহায়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র রসায়নে নোবেল পুরস্কার পেলেন ৩ বিজ্ঞানী অসাম্প্রদায়িকতা ও গণতন্ত্রের জন্য বিএনপি ছদ্মবেশ ধরেছে: কাদের বিএনপিকে সিরাতুল মুস্তাকিমে চলার আহ্বান আব্দুর রহমানের অসাম্প্রদায়িক চেতনা ধ্বংসের মূলহোতা বিএনপি: হানিফ সুলতানা কামালরা আওয়ামী অধিকার রক্ষার কর্মী : রিজভী ভিসার নিয়মে পরিবর্তন আনল সংযুক্ত আরব আমিরাত

ইউক্রেন যুদ্ধের জন্যই তেলের দাম বেড়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • বুধবার, ১০ আগস্ট, ২০২২

ঢাকা : রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জন্যই দেশে তেলের দাম বেড়েছে মন্তব্য করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, তেলের দাম শুধু বাংলাদেশ নয়, সারা পৃথিবীতেই বেড়েছে। আর দেশের অভ্যন্তরীণ কোনো কারণে দাম বাড়েনি। বেড়েছে একমাত্র যুদ্ধের প্রভাবেই। কিন্তু এটি নিয়ে বিরোধীরা মিথ্যাচার করছে।

বুধবার (১০ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সরকার ইচ্ছে করে দাম বাড়ায়নি। বাড়ানোর কারণ, সরকার অনেক বেশি দামে তেল কিনেছে। আগামী দিনগুলোতে যাতে তেলের সংকট না হয়, ঠিকঠাক মতো যেন আমরা তেল পাই সেজন্যই বাড়ানো হয়েছে।

জাহিদ মালেক বলেন, সরকার পরিকল্পিতভাবে লোডশেডিং দিচ্ছে। তেলের দামও সবসময় একরকম থাকবে না। বিশ্ব বাজারে কমলে দেশেও কমানো হবে। এতোকিছুর পরও তো দেশে খাদ্যের অভাব হয়নি, হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা কার্যক্রম ঠিকঠাক মতোই চলছে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় আছেন বলেই দেশের উন্নয়ন হচ্ছে, স্বাস্থ্য সেবা এগিয়ে যাচ্ছে। প্রোপাগাণ্ডা করে কখনও এগোনো যাবে না। বাস্তবে যা আছে সেটা মানতে হবে, দেখতে হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রতি প্রতি ভালোবাসা থাকলে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়। এক সময় দেশে কিছুই ছিল না। গ্রামে-গঞ্জে রাস্তাঘাট ছিল না, বিদ্যুতের আলো ছিল না। চিকিৎসার অবকাঠামো ছিল না। এখন মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিয়েছি। ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে, উপজেলা-জেলা হাসপাতাল রয়েছে। পর্যাপ্ত চিকিৎসকসহ ওষুধের কোনো সংকট নেই।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের (ডব্লিউএইচও) বাংলাদেশ রিপ্রেজেনটেটিভ ড. বার্দান জাং রানা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. নাজমুল ইসলাম প্রমুখ।

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved